মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সিটিজেন চার্টার

সিটিজেন চার্টার

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজসেবা অধিদফতর কর্তৃক উপজেলা পর্যায়ে জনগণের জন্য প্রদত্ত সেবা সমূহঃ

ক্রঃ নং

কার্যক্রম

সেবা

সেবা গ্রহীতা

সেবা প্রাপ্তির সময়সীমা

পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রম

পল্লী অঞ্চলের দরিদ্র জনগণকে সংগঠিত করে উন্নয়নের মূল স্রো্তধারায় আনয়ন;

সচেতনতা বৃদ্ধি, উদ্বুদ্ধকরণ এবং দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ প্রদান;

৫ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রদান;

লক্ষ্যভুক্ত ব্যক্তিদের নিজস্ব পুঁজি গঠনের জন্য সঞ্চয় বৃদ্ধি।

 

নির্বাচিত গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা, যিনি:-

আর্থ সামাজিক জরিপের মাধ্যমে সমাজসেবা অধিদফতরে তালিকাভুক্ত পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমের কর্মদলের সদস্য/সদস্যা;

সুদমুক্ত ঋণ ও অন্যান্য সেবা প্রাপ্তির জন্য ‘ক’ ও ‘খ’ শ্রেণীভুক্ত দরিদ্রতম ব্যক্তি অর্থাৎ যার মাথাপিছু বার্ষিক পারিবারিক আয় সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত;

সুদমুক্ত ঋণ ব্যতীত অন্যান্য সেবা প্রাপ্তির জন্য ‘গ’ শ্রেণীভুক্ত ব্যক্তি অর্থাৎ যার মাথাপিছু বার্ষিক পারিবারিক আয় ২৫ হাজার টাকার ঊর্ধে।

নির্ধারিত ফরমে যথাযথ পদ্ধতি অনুসরণ করে আবেদনের পর:-

১ম বার ঋণ (বিনিয়োগ) গ্রহণের জন্য আবেদনের পর ১ মাসের মধ্যে;

২য়/ ৩য় পর্যায়ের ঋণ (পুনঃবিনিয়োগ) গ্রহণ এর জন্য আবেদনের পর ২০ দিনের মধ্যে।

পল্লী মাতৃকেন্দ্র কার্যক্রম

পল্লী অঞ্চলে দরিদ্র নারীদের সংগঠিত করে উন্নয়নের মূল স্রোত ধারায় আনয়ন;

পরিকল্পিত পরিবার তৈরিতে সহায়তা;

জাতীয় জনসংখ্যা কার্যক্রম বাস্তবায়ন;

সচেতনতা বৃদ্ধি, উদ্বুদ্ধকরণ এবং দক্ষতা  উন্নয়ন;

৩ হাজার থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রদান;

লক্ষ্যভুক্ত নারীদের সংগঠিত করে সঞ্চয় বৃদ্ধির মাধ্যমে পুঁজি গঠন।

নির্বাচিত গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা, যিনি:-

আর্থ সামাজিক জরিপের মাধ্যমে সমাজসেবা অধিদফতরে তালিকাভুক্ত পল্লী মাতৃকেন্দ্রের সদস্য; এবং

সুদমুক্ত ঋণ ও অন্যান্য সেবা প্রাপ্তির জন্য ‘ক’ ও ‘খ’ শ্রেণীভুক্ত দরিদ্রতম নারী যার মাথাপিছু বার্ষিক পারিবারিক আয় সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত;

সুদমুক্ত ঋণ ব্যতীত অন্যান্য সেবা প্রাপ্তির জন্য ‘গ’ শ্রেণীভুক্ত নারী যার মাথাপিছু বার্ষিক পারিবারিক আয় ২৫ হাজার টাকার ঊর্ধে।

নির্ধারিত ফরমে যথাযথ পদ্ধতি অনুসরণ করে আবেদনের পর:-

১ম বার ঋণ (বিনিয়োগ) গ্রহণের জন্য আবেদনের পর ১ মাসের মধ্যে;

২য়/ ৩য় পর্যায়ের ঋণ (পুনঃবিনিয়োগ) গ্রহণ এর জন্য আবেদনের পর ২০ দিনের মধ্যে।

এসিডদগ্ধ ও প্রতিবন্ধীদের পুনর্বাসন কার্যক্রম

৫ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকা ক্ষুদ্রঋণ

এসিডদগ্ধ ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তি যাদের বাৎসরিক আয় ২০,০০০  (বিশ হাজার) টাকার নিচে।

 

১ম বার ঋণ (বিনিয়োগ) গ্রহণের জন্য আবেদনের পর ১ মাসের মধ্যে;

২য়/ ৩য় পর্যায়ের ঋণ (পুনঃবিনিয়োগ) গ্রহণ এর জন্য আবেদনের পর ২০ দিনের মধ্যে।

বয়স্ক ভাতা কার্যক্রম

সরকার কর্তৃক সামাজিক নিরাপত্তার জন্য নির্ধারিত হারে বয়স্ক ভাতা প্রদান। এ জন্য ২০০৮-০৯ অর্থ বছরে নির্বাচিত বয়স্ক ব্যক্তিদের জনপ্রতি মাসিক ২৫০ টাকা হারে ভাতা প্রদান।

 

দেশের সকল সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও উপজেলার ৬৫ বছর বা তদূর্ধ বয়সী হতদরিদ্র মহিলা বা পুরুষ, যার বার্ষিক গড় আয় অনূর্ধ ৩,০০০ (তিন হাজার ) টাকা;

শারীরিক ভাবে অক্ষম ও কর্মক্ষমতাহীন প্রবীণ  পুরুষ ও মহিলাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়া হয়;

তালাকপ্রাপ্ত, স্বামী পরিত্যক্ত, বিপত্নীক, নিঃসমত্মান, পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন প্রবীণ  পুরুষ ও নারীদের অগ্রাধিকার দেয়া হয়;

যে সকল প্রবীণ   ব্যক্তির আয়কৃত অর্থের সম্পূর্ণ অর্থ খাদ্য বাবদ ব্যয় হয় এবং স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, বাসস্থান ও অনান্য খাতে ব্যয় করার জন্য কোন অর্থ অবশিষ্ট থাকে না;

ভূমিহীন বয়স্ক ব্যক্তি।

 

বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ৩ মাসের মধ্যে নতুন ভাতাভোগী নির্বাচনসহ ভাতা বিতরণের ব্যবস্থা গ্রহণ;

নির্বাচিত ভাতাভোগীকে বরাদ্দপ্রাপ্তি সাপেক্ষে প্রতিমাসে প্রদান করা। তবে কেউ এককালীন উত্তোলন করতে চাইলে তিনি নির্ধারিত সময়ের শেষে  উত্তোলন করবেন;

ভাতাগ্রহীতার নমিনীকে ভাতাভোগীর মৃত্যুর পূর্বে প্রাপ্ত বকেয়া টাকা এবং মৃত্যুর পর তিন মাস পর্যন্ত ভাতার টাকা উত্তোলন করা যাবে।

অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা কার্যক্রম

সরকার কর্তৃক সামাজিক নিরাপত্তার জন্য নির্ধারিত হারে অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদান। এ জন্য ২০০৮-০৯ অর্থ বছরে নির্বাচিত প্রতিবন্ধীব্যক্তিদের জনপ্রতি মাসিক ২৫০ টাকা হারে ভাতা প্রদান।

 

৬ বছরের ঊর্ধে সকল ধরণের প্রতিবন্ধী ব্যক্তি যিনি বয়স্কভাতা কিংবা সরকার কর্তৃক অন্য কোন ভাতা পান না; যিনি চাকুরীজীবী  কিংবা পেনশনভোগী নন;

প্রতিবন্ধী ব্যক্তি যাদের বার্ষিক মাথাপিছু পারিবারিক আয় ২৪,০০০ (চবিবশ হাজার)  টাকার কম

বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ৩ মাসের মধ্যে নতুন ভাতাভোগী নির্বাচনসহ ভাতা বিতরণের ব্যবস্থা গ্রহণ;

নির্বাচিত ভাতাভোগীকে বরাদ্দপ্রাপ্তি সাপেক্ষে প্রতিমাসে প্রদান। তবে কেউ এককালীন উত্তোলন করতে চাইলে তিনি নির্ধারিত সময়ের শেষে  উত্তোলন করবেন;

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের ৪টি স্তরে বিভক্ত করে নিম্নরূপ হারে উপবৃত্তির প্রদান:-

প্রাথমিক স্তর (১ম-৫ম শ্রেণী)

 মাসিক ৩০০/- টাকা

মাধ্যমিক সত্মর (৬ষ্ঠ-১০ম শ্রেণী)

 মাসিক ৪৫০/- টাকা

উচ্চ মাধ্য.স্তর (১১শ ও ১২শ শ্রেণী)

 মাসিক ৬০০/- টাকা

উচ্চতর স্তর (স্নাতক ও স্নাতকোত্তর) মাসিক ১০০০ টাকা

সরকার কর্তৃক অনুমোদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত ৫ বছর বয়সের ঊর্ধে প্রতিবন্ধী ছাত্র-ছাত্রী, যাদের বার্ষিক মাথাপিছু পারিবারিক আয় ৩৬,০০০ (ছত্রিশ হাজার)  টাকার নিচে।

 

বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ৩ মাসের মধ্যে নতুন উপবৃত্তি গ্রহণকারী  নির্বাচনসহ উপবৃত্তি বিতরণ এবং  নিয়মিতভাবে শিক্ষাকালীন সময়ে;

মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা

সরকার কর্তৃক নির্ধারিত হারে ভাতা প্রদান। ২০০৮-০৯ অর্থ বছরে প্রত্যেক অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাকে মাসিক জনপ্রতি  ৯০০ টাকা হারে ভাতা প্রদান।

মুক্তিযোদ্ধা ও  মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী যার বার্ষিক আয় ১২,০০০ টাকার ঊর্ধে নয়;

মুক্তিযোদ্ধা বলতে জাতীয়ভাবে প্রকাশিত ৪টি তালিকার কমপক্ষে দুটি তালিকায় অমর্ত্মভুক্ত, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ এবং বাংলাদেশ রাইফেল্স্ হতে প্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় যাদের নাম অমর্ত্মভুক্ত আছে বা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্তৃক প্রকাশিত গেজেট বা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্তৃক মুক্তিযোদ্ধা সনদপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা।

এক্ষেত্রে কর্মক্ষম নন বা আংশিক কর্মক্ষম/ ভূমিহীন/কর্মহীন/সহায় সম্বলহীন মুক্তিযোদ্ধাগণ অগ্রাধিকার পাবেন;

বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ৬ মাসের মধ্যে নতুন ভাতাভোগী নির্বাচনসহ ভাতা বিতরণের ব্যবস্থা গ্রহণ

মুক্তিযোদ্ধা সম্মানীভাতা প্রতিমাসে প্রদান করা হয়, তবে কেউ ইচ্ছা করলে একাধিক মাসের বকেয়া ভাতা একত্রে উত্তোলন করতে পারবেন ।

 

বেসরকারি এতিমখানায় ক্যাপিটেশন গ্রান্ট প্রদান

১৮ বছর বয়স পর্যন্ত এতিম শিশুদের প্রতিপালন

স্নেহ-ভালবাসা ও আদর-যত্নের সাথে লালন পালন

শিক্ষা ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ প্রদান

শারীরিক, বুদ্ধিবৃত্তিক ও মানবিক উৎকর্ষতা সাধন

শিশুর পরিপূর্ণ বিকাশে সহায়তা

পুনর্বাসন ও স্বনির্ভরতা অর্জনের লক্ষ্যে তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা।

বেসরকারি এতিমখানার ৫-৯ বছর বয়সী এতিম অর্থাৎ পিতৃহীন বা পিতৃমতিৃহীন দরিদ্র শিশুর শতকরা ৫০ ভাগ শিশু।

 

বেসরকারি এতিমখানা কর্তৃক ক্যাপিটেশন গ্রান্টের আবেদন প্রাপ্তির ৭ মাস পর।

 


Share with :

Facebook Twitter